অভিবাসনতিউনিশিয়ার সঙ্গে সীমান্ত ফের খুলে দিলো লিবিয়া

তিউনিশিয়ার সঙ্গে সীমান্ত ফের খুলে দিলো লিবিয়া

- Advertisment -spot_img

ডেস্ক রিপোর্ট

লিবিয়ার অভ্যন্তরীণ মন্ত্রী ত্রিপোলিতে জানিয়েছেন, তিউনিশিয়ার সঙ্গে রাস ইজদিরে সীমান্ত ক্রসিং খুলে দেয়া হয়েছে৷ সহিংসতা এবং সশস্ত্র সংঘর্ষের ফলে তিন মাস বন্ধ থাকার পর এই সীমান্ত সোমবার পুরোপুরি খুলে দেয়া হয়েছে৷

পরিস্থিতি খানিকটা শান্ত হওয়ার পর আংশিকভাবে জুনের মাঝামাঝি সীমান্ত চালু হয়, যদিও শুধুমাত্র মানবিক এবং স্বাস্থ্য খাতের পাশাপাশি বিশেষ ক্ষেত্রে অনুমতি সহ পারাপার করা যেতো৷ সীমান্ত পেরোনোর জন্য তিউনিশিয়া এবং আলজেরিয়ার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অনুমতির প্রয়োজন ছিল৷

তিউনিশিয়া ও লিবিয়ার মধ্যে এই সীমান্ত পুনরায় উদ্বোধন অনুষ্ঠানে লিবিয়ার দিক থেকে বেশ কয়েকটি অ্যাম্বুলেন্স আসতে দেখা গিয়েছে৷ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ত্রিপোলি-ভিত্তিক জাতীয় সরকারের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এমাদ ত্রাবুলসি এবং তিউনিশিয়ার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী খালেদ নুরি৷

ত্রাবুলসি সীমান্ত এলাকায় সাংবাদিকদের বলেন, এই সীমান্ত ‘সবার জন্য আবার খুলে দেয়া হয়েছে৷ তবে চোরাচালানের কোনো স্থান এখানে নেই৷’

রাস ইজদির হলো লিবিয়ার পশ্চিমে প্রধান সীমান্ত ক্রসিং৷ লিবিয়ানরা প্রায়ই চিকিৎসার জন্য তিউনিশিয়ায় যেতে এই সীমান্ত ব্যবহার করতেন৷ তিউনিশিয়ার ব্যবসায়ীরা লিবিয়ায় পণ্য নিয়ে আসতেন৷

তেলসমৃদ্ধ দেশ লিবিয়া ২০১১ সালে মুয়াম্মার গাদ্দাফীর মৃত্যুর পর থেকেই রাজনৈতিক সংকটের ভেতর দিয়ে যাচ্ছে৷ ২০১১ সালের বিদ্রোহের পর থেকে পরিস্থিতি খানিকটা শান্ত হয় লিবিয়ায়৷

পশ্চিম সীমান্তের কাছে বসবাসকারী লিবিয়ানদের আহ্বান জানিয়েছে ত্রাবুলসি বলেন, ‘‘চোরাচালান এবং অবৈধ অভিবাসন মোকাবেলায় আঞ্চলিক নিরাপত্তা বাহিনীকে সহায়তা করুন৷’’

তিনি বলেন, সম্ভব হলে লিবিয়ার সঙ্গে তিউনিশিয়ার দুটি নতুন সীমান্ত ক্রসিং খুলে দয়া হবে৷ রাস ইজদির ছাড়াও ওয়াজেন-ধেহিবাতে দুই দেশের একটি ছোটখাটো ক্রসিং আছে৷

ইউরোপমুখী অভিবাসনপ্রত্যাশীদের কাছে তিউনিশিয়া এবং তার প্রতিবেশী দেশ লিবিয়ার উপকূল মূল প্রস্থান এলাকা হয়ে উঠেছে৷ বিশেষ করে সাব-সাহারা আফ্রিকার বিভিন্ন দেশ থেকে আসা অভিবাসনপ্রত্যাশীরা ইউরোপে উন্নত জীবনের আশায় জীবনের ঝুঁকি নিয়ে সেন্ট্রাল ভূমধ্যসাগর পাড়ি দেন৷

এর আগে তিউনিশিয়ান ফোরাম ফর ইকোনমিক অ্যান্ড সোশ্যাল রাইটস (এফটিডিইএস) জানিয়েছিলো, লিবিয়া এবং আলজেরিয়ার সঙ্গে থাকা টিউনিশিয়ার সীমান্তের অবস্থা খুবই গুরুতর৷ অভিবাসীদের আটক করে সীমান্তবর্তী মরুভূমিতে ফেলে রাখার অভিযোগও উঠেছিল৷ যদিও কোনো দেশই মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগ স্বীকার করেনি৷

সূত্র: ইনফোমাইগ্রেন্টস

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Latest news

বাংলাদেশে চলমান অস্থিরতায় প্রবাসীদের সাথে নিউইয়র্ক মেয়রের সংহতি

বাংলাদেশের চলমান বিক্ষোভের প্রেক্ষিতে বাংলাদেশি সম্প্রদায়ের প্রতি সংহতি জানালেন মেয়র এরিক অ্যাডামস এরিক অ্যাডামস বাংলাদেশের চলমান সহিংস বিক্ষোভ নিয়ে উদ্বেগ...

জার্মানির বাংলাদেশ দূতাবাসের সামনে কোটা আন্দোলনে সংহতি জানিয়ে বিক্ষোভ

জার্মানি প্রতিনিধি কোটা সংস্কারের দাবীতে চলমান আন্দোলনে সাধারণ শিক্ষার্থীদের সাথে সংহতি জানিয়ে বৃহস্পতিবার বিকেলে বার্লিনের বাংলাদেশ দূতাবাসের সামনে বিক্ষোভ মিছিল...

বাংলাদেশে ছাত্র-ছাত্রীদের হত্যা, নির্যাতনের প্রতিবাদে সাংবাদিক সম্মেলন করেছে ইতালি প্রবাসীরা

মালিক মনজুর ইতালি প্রতিনিধি বাংলাদেশে কোটা সংস্কার আন্দোলনকে কেন্দ্র করে পুলিশ ও ছাত্রলীগ দ্বারা সাধারণ ছাত্র-ছাত্রীদের হত্যা, নির্যাতনের প্রতিবাদে সাংবাদিক...

গুলিবিদ্ধ হয়ে ঢাকা টাইমসের সাংবাদিক মেহেদী নিহত

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকা রাজধানীর যাত্রবাড়িতে কোটা সংস্কার আন্দোলনকারী ও পুলিশের মধ্যে সংঘর্ষ চলাকালে এক সাংবাদিক নিহত হয়েছেন। নিহত সাংবাদিকের নাম...
- Advertisement -spot_img

ইউরোপের কাছে সহায়তার আর্জি তিউনিশিয়ার

ডেস্ক রিপোর্ট তিউনিশিয়ার প্রধানমন্ত্রী বুধবার ইউরোপীয় দেশগুলোর কাছে আর্থিক সহায়তা বৃদ্ধির আহ্বান জানিয়েছেন। সাব-সাহারান আফ্রিকা থেকে আসা অভিবাসী প্রবাহ মোকাবেলা...

আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা বৈষম্যবিরোধী ছাত্র আন্দোলনের

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকা সরকারি চাকরিতে কোটা সংস্কারের দাবিতে চলমান আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছে বৈষম্যবিরোধী ছাত্র আন্দোলন।বৃহস্পতিবার (১৮ জুলাই) সন্ধ্যায়...

Must read

বাংলাদেশে চলমান অস্থিরতায় প্রবাসীদের সাথে নিউইয়র্ক মেয়রের সংহতি

বাংলাদেশের চলমান বিক্ষোভের প্রেক্ষিতে বাংলাদেশি সম্প্রদায়ের প্রতি সংহতি জানালেন...

জার্মানির বাংলাদেশ দূতাবাসের সামনে কোটা আন্দোলনে সংহতি জানিয়ে বিক্ষোভ

জার্মানি প্রতিনিধি কোটা সংস্কারের দাবীতে চলমান আন্দোলনে সাধারণ শিক্ষার্থীদের সাথে...
- Advertisement -spot_img

You might also likeRELATED
Recommended to you